লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল শুরু, ফেরি বন্ধ

বৈরী আবহাওয়ার কারণে দুদিন বন্ধ থাকার পর মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি নৌপথে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল শুরু হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে এই চলাচল শরু হয়। তবে নাব্যতা–সংকটের কারণে আজও বন্ধ আছে ফেরি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে লঞ্চ ও স্পিডবোট স্বাভাবিকভাবে চলছিল। আবহাওয়া অধিদপ্তর এই নৌপথকে ২ নম্বর সতর্কসংকেতের আওতায় নিয়ে আসে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে নদীতে ঝোড়ো বাতাস ছিল। এ কারণে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত এই নৌরুটের ৮২টি লঞ্চ ও চার শতাধিক স্পিডবোট বন্ধ করে দেওয়া হয়। আবহাওয়া অনুকূলে আসায় এসব নৌযান আজ সকাল থেকে ফের চলতে শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডব্লিউটিএর নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পরিচালক মো. শাহদাত হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ থাকায় দুপারের কয়েক হাজার যাত্রী ভোগান্তিতে ছিলেন। সকালে আবারও নৌযান চলাচল শুরু হলে যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি আসে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের উপমহাব্যবস্থাপক শফিক আহম্মেদ বলেন, আজও লৌহজং বিকল্প চ্যানেলের পাশ দিয়ে নতুন একটি চ্যানেলে খননের কাজ চলছে। চ্যানেলটি পদ্মা সেতুর ৩৮ নম্বর খুঁটির পাশ দিয়ে হচ্ছে। বিআইডব্লিউটিএর লোকজন চ্যানেল বুঝিয়ে দিলেই ফেরি চালানো শুরু হবে। তবে কবে নাগাদ ফেরি চলতে শুরু করবে, সেটা এখনো অনিশ্চিত।

ঘাট ও স্থানীয় সূত্র জানায়, নাব্যতা–সংকটের জন্য ৯ দিন ধরে এই পথে ফেরি চলাচল বন্ধ। তীব্র স্রোত ও নাব্যতা–সংকটে তিন মাস ধরেই এই নৌপথে ফেরি চলাচল ভীষণভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

তথ্যসূত্রঃ ProthomAlo

Reply